খেঁজুরের গুড়ের পায়েশ।

 

সারমিন সুলতানা উপমা : বাংলার মানুষের ঐতিহ্যের সঙ্গে মিশে রয়েছে পিঠা – পার্বণের উৎসব। শীতকাল মানেই পিঠা – পুলি আর পায়েসের হরেক রকম আয়োজন। আর এগুলো বেশিরভাগই তৈরি হয়ে থাকে খেঁজুরের রস ও খেঁজুরের গুড় দিয়ে।

আবহমান বাংলায় কুয়াশাচ্ছন্ন শীতের সকালে ধোঁয়া ওঠা গরম পায়েস আমাদের কার না ভালো লাগে। বিশেষ করে খেঁজুরের গুড় দিয়ে রান্না করা খাবারের মিষ্টি গন্ধ যেন আমাদের মন মাতিয়ে তোলে। এ রকমই একটা রেসিপি আমি আপনাদের শেয়ার করবো। এটি হলো – খেঁজুরের গুড়ের পায়েস। চাইলে সহজেই বাসায় তৈরি করতে পারবেন দারুণ স্বাদের খাবারটি। আসুন এক নজরে দেখে নিই রেসিপিটি।

উপকরণ :
গরুর দুধ ৪ লিটার, খেঁজুরের গুড় এক কেজি, পোলায়ের চাল আধা কাপ, আস্ত এলাচ ২/৩টা, কোরানো নারকেল আধা কাপ(ইচ্ছা না হলে না দিলেও চলবে), কনডেন্স মিল্ক এক কাপ, বাদাম কুচি (সাজানোর জন্য)।

রান্নার প্রণালি :
প্রথমে পোলাও এর চাল ধুয়ে পানি দিয়ে ভিজিয়ে রাখুন আধা ঘণ্টা। গুড় দুই কাপ পানি দিয়ে জ্বাল করে সিরার মতো করে ঠান্ডা করে নিন। এবার চুলায় একটি হাড়িতে দুধ জ্বাল বসাতে হবে, তাতে আস্ত এলাচ দিয়ে দিতে হবে।

খেঁজুরের গুড়ের পায়েসদুধ ঘন হয়ে অর্ধেক হয়ে এলে এর মধ্যে ভিজিয়ে রাখা চাল দিয়ে দিন। এবার অনবরত নাড়তে থাকুন যেন লেগে না যায়।

চাল ফুটে উঠলে কোরানো নারকেল এবং কনডেন্স মিল্ক দিয়ে ভালোভাবে নেড়ে আরও কিছুক্ষণ জ্বাল দিয়ে পায়েস ঘন হয়ে আসলে নামিয়ে নিন।
এবার খেঁজুরের গুড়ের শিরা ভালোভাবে মিশিয়ে দিন।

সবশেষে সুন্দর একটি পাত্রে ঢেলে ওপরে বাদাম কুচি দিয়ে ঈদের দিন পরিবেশন করুন দারুণ মজার খেঁজুরের গুড়ের পায়েস।

শারমিন সুলতানা উপমা : তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী

পাঠকের মন্তব্য