হাজারো মানুষের অংশগ্রহণে হাফেজ মোস্তাফিজুর রহমানের জানাযা সম্পন্ন

এইচ এম মুজিবুর রহমান : গভীর রাতেও আল্লামা হাফেজ মোস্তাফিজুর রহমানের জানাজায় হাজারো মানুষ অংশগ্রহণ করেছে। রবিবার (১২ আগষ্ট) রাত সাড়ে ১১-টায় বেগমগঞ্জ পাইলট স্কুল মাঠে জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় ইমামতি করেন তার বড় ছেলে মাওলানা সাইদুর রহমান। জানাজা শেষে তাকে গ্রামের বাড়ী রামপুরা তিতারকান্দি তার প্রতিষ্ঠিত জামিয়া ক্বওমী মাদরাসা গোরস্তানে পিতামাতা কবরের পাশে দাফন করা হয়।

দীর্ঘদিন থেকে হাফেজ মোস্তাফিজুর রহমান হার্ট ও ডায়বেটিস জনিত রোগে ভুগছেন৷ গত মঙ্গলবার হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন৷ পরে নোয়াখালীর একটি স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়৷ সেখানে অবস্থার অবনতি হলে বৃহস্পতিবার জরুরী ঢাকার একটি হাসপাতালে প্রেরন করা হয়৷ পরে রবিবার দুপুর সাড়ে ১২-টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন৷  দুপুরে মৃত্যুর খবর শোনার পর সারাদেশ এবং বৃহত্তর নোয়াখালী জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আল্লামা মোস্তাফিজুর রহমানের ভক্ত অনুসারী ছাত্র জনতা ও কওমি মাদরাসার শিক্ষক ছাত্ররা দলে দলে আসতে থাকেন নোয়াখালী বেগমগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালের মাঠের দিকে।

মাগরিবের নামাজের আগেই ভরপুর হয়ে যায় স্কুল মাঠ চত্বর। রাত ১১টা নাগাদ স্কুল মাঠ ও চৌমুহনী চৌরাস্তা প্রধানসড়ক ও আশপাশ এলাকা কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায়। রাত ১১টার আগেই লাশ নিয়ে যাওয়া হয় মাঠের পশ্চিম পাশ্বে৷ এখানে লাশ রেখে জানাজা সম্পন্ন হয়। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ৷ জানাযায় অংশ'নেন দলটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা ইমতিয়াজ আলম ও কেন্দ্রীয় শিক্ষা সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাওলানা কেফায়েত উল্লাহ কাশফী সহ জেলার নেতৃবৃন্দরা৷

পাঠকের মন্তব্য