সংবাদ শিরোনাম
Home / Featured / সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন পেতে পারেন বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীনের কন্যা ফাতেমা বেগম
Fatema

সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন পেতে পারেন বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীনের কন্যা ফাতেমা বেগম

নোয়াখালী টিভি :নতুন মন্ত্রীসভার শপথের মধ্যদিয়ে টানা তৃতীয় বারের মতো গঠিত হল নতুন সরকার। সংসদের প্রথম অধিবেশনেই সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্যদের যোগদান নিশ্চিত করতে চায় দলটি। ফলে এর মধ্যেই সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন নিয়ে তোড়জোড় শুরু করেছে আওয়ামীলীগ। প্রধানমন্ত্রী নিজেই সংরক্ষিত নারী এমপি হিসেবে মনোনয়ন পাওয়ার উপযোগীদের নাম চূড়ান্ত করবেন।

জানা যায়, দশম জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক ছাত্রনেত্রী, শিক্ষক, উদ্যোক্তা, অভিনেত্রী, শিল্পী, ব্যবসায়ী, দলের জন্য নিবেদিত অন্যান্য কর্মী বিশেষ করে মহিলা লীগ, যুব মহিলা লীগ নেত্রীদের মধ্য থেকে ইতিমধ্যেই নাম সংগ্রহ করছে আওয়ামী লীগ। যারা দলের ও সরকারের দুর্দিনে ত্যাগ স্বীকার করেছেন, বিভিন্ন সামাজিক কাজে অবদান রেখেছেন, দলের ও দলের সহযোগী সংগঠনে নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন -এমন জনপ্রিয় নেত্রীরা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমন গুণসম্পন্ন কর্মীর তালিকা তৈরি করছেন বলে জানান দলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির অন্যতম এক প্রেসিডিয়াম সদস্য।

দেশের সাতজন বীরশ্রেষ্ঠ পরিবারের মধ্য থেকেও সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়ে একাধিক সুত্র থেকে জানা গেছে। সে হিসেবে অনেকটা এগিয়ে রয়েছেন বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীনের কনিষ্ট কন্যা মিসেস ফাতেমা বেগম। তিনি দীর্ঘদিন ধরে চট্রগ্রাম উত্তর মহিলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হিসেবে রাজনীতিতে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন। এছাড়া তিনি এলাকার বিভিন্ন স্কুল,কলেজ, মাদ্রাসা এবং মসজিদের উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তার ভূমিকা ছিলো লক্ষনীয়। ৭টি নির্বাচনী আসনে দিন-রাত পরিশ্রম করেছেন এবং সভা সমাবেশ, মিছিল মিটিংয়ে ছিলেন দলের জন্য একজন নিবেদিত প্রাণ। দল-মত নির্বিশেষে সকল শ্রেনীর মানুষের কাছে এই নারী নেত্রী এখন সবার পরিচিত মুখ। দেশের প্রতি অদম্য ভালোবাসা, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এবং জাতির জনকের কন্যার একজন আস্থাভাজন উচ্চ শিক্ষিত এই শহীদ কন্যা জাতীয় সংসদের একজন আদর্শ সাংসদ হওয়ার যোগ্যতা রাখে। নোয়াখালীবাসী এমনটাই প্রত্যাশা করেন জাতির জনকের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্র্রী শেখ হাসিনার কাছে। ফাতেমা বেগমের জন্ম নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার বাগপাচড়া গ্রামে। বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমীনের ২ ছেলে ৩ মেয়ের মধ্যে ফাতেমা বেগম সবার ছোট। উল্যেখ্য এর আগেও দু’দুইবার সংরক্ষিত মহিলা আসনে লড়েছেন এই নারী নেত্রী। তখন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পরবর্তীবার তাকে একটি সংরক্ষিত আসন দেওয়ার আশ্বাস প্রদান করেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মোট আসন পেয়েছে ২৫৭টি। প্রতি ৬ আসনে একজন করে সংরক্ষিত মহিলা এমপি নির্বাচিত করার বিধান আছে। সে হিসেবে আওয়ামী লীগ পায় ৪৩টি আসন। জাতীয় পার্টি ২২ এমপির বিপরীতে আসন পায় ৪টি। মহাজোটের অন্যান্য দলের ৬টি বা তার বেশি আসন না পাওয়ায় এককভাবে কেউ সংরক্ষিত আসনে মহিলা এমপির মনোনয়ন দিতে পারবেন না।

দশম জাতীয় সংসদে ৫০টি সংরক্ষিত আসনের ৪২টিই আওয়ামী লীগের। এর বাইরে জাতীয় পার্টির ৬টি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ ও ওয়ার্কার্স পার্টির একটি করে সংরক্ষিত আসনের এমপি রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow